Thu. Jan 20th, 2022

নীলফামারী জেলা বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) জেলা শিল্পকলা অডিটোরিয়ামে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।
এতে প্রধান অতিথি থাকবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তবে সম্মেলনে নেতা নির্বাচনে গঠন করা হয়েছে নির্বাচন কমিশন। এটিকে মডেল হিসেবে বলছেন জেলার দায়িত্বে থাকা শীর্ষ নেতারা। এর আগে গেল বছরের ১৪নভেম্বর সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হলেও সেটি পিছিয়ে করা হয় ডিসেম্বর মাসের ২৩ তারিখে কিন্তু ওই দিনও হয়নি জেলা সম্মেলন।
সুত্র জানায়, কমিটি গঠন নিয়ে অভিযোগ উঠায় বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভুইয়ার নেতৃত্বে একটি টীম নীলফামারীতে সরেজমিনে তদন্ত করে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছে রিপোর্ট করেন। পরবর্তিতে সমাধান হওয়ায় ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশে চলতি জানুয়ারী মাসের ১৬তারিখ দিনক্ষণ ঠিক করা হয় সম্মেলন সম্পন্নে।
এদিকে সম্মেলন ঘিরে গঠন করা হয় নির্বাচন কমিশন। যেটি গঠন করে দেন দলের রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুল হাবিব দুলু গত ২জানুয়ারি।
কমিশনে এ্যাডভোকেট আশরাফুল লতিফ কিবরিয়া প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং ব্যবসায়ী মোজাম্মেল হক, এ্যাডভোকেট কাজী ফয়েজ উল হক শিশির, এ্যাডভোকেট হাসনাইন ইমাম সোহেল ও এ্যাডভোকেট রবিউল আলম আহসান প্রামানিককে নির্বাচন কমিশনার হিসেবে রাখা হয়েছে।
নির্বাচন তফসিল অনুযায়ী ৭জানুয়ারি মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ ও জমাদান, একই দিন বাছাই, ৮জানুয়ারী প্রার্থীতা প্রত্যাহার ও চুড়ান্ত তালিকা প্রকাশ এবং ১৬জানুয়ারি ভোটগ্রহণ ও ফলাফল প্রকাশ।
জেলা বিএনপির সদস্য সচিব জহুরুল আলম বলেন, দলের ভেতর থেকে কেন্দ্রে অভিযোগ করা হয়। সেটি আমলে নিয়ে নেতাদের সাথে কথা বলে তদন্ত করে দেখে এর সত্যতা পাননি দায়িত্ব প্রাপ্ত নেতা আবুল খায়ের ভুইয়া ও সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল খালেক। তদন্তে সব নেতাদের সাথে কথা বলেন তারা। এসব সমাধান হওয়ার পর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশে নতুন করে সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়।
জেলা বিএনপির আহবায়ক আলমগীর সরকার বলেন, বিএনপিতে নেতা নির্বাচনে মডেল সম্মেলন শুরু হলো নীলফামারী থেকে। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এটি সারাদেশে প্রয়োগ করবে কেন্দ্র। তিনি বলেন, জেলার আওতায় সাতটি ইউনিট রয়েছে। ২০১৯সালের ২৪মার্চ দায়িত্ব পাওয়ার নয় মাসের মধ্যে সকল ইউনিটে সম্মেলনের মাধ্যমে আমরা কমিটি করতে পেরেছি।
জেলা বিএনপি’র সুত্র জানায়, সম্মেলনের দিন মহাসচিব ছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু এবং উদ্বোধক হিসেবে থাকবেন সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুল হাবিব দুলু।
নির্বাচন কমিশনার এ্যাডভোকেট হাসনাইন ইমাম সোহেল জানান, সভাপতি পদে আলমগীর সরকার এবং সাধারণ সম্পাদক পদে জহুরুল আলম একমাত্র প্রার্থী হিসেবে ফরম সংগ্রহ ও জমা দিয়েছেন। সভাপতি পদে ১০হাজার এবং সাধারণ সম্পাদক পদে সাত হাজার টাকা জামানত হিসেবে দিতে হয়েছে তাদের।

By

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!