এসআই আকবরের ক্ষেত্রে সব আইনি প্রক্রিয়া চলবে: এসপি


ডেস্ক ।। সিলেটে পুলিশের নির্যাতনে রায়হান আহমদ হত্যার সঙ্গে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় সবধরনের সহযোগিতা করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন। এ ব্যাপারে তিনি পুলিশের ওপর আস্থা রাখতে বলেছেন। এছাড়া গ্রেপ্তার বহিষ্কৃত এসআই আকবর হোসেনের ব্যাপারে সব আইনি প্রক্রিয়া অবলম্বন করা হবে বলেও জানান তিনি।

সোমবার সন্ধ্যায় সিলেট জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সামনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসপি এসব কথা বলেন। গ্রেপ্তার এসআই আকবর সম্পর্কে জানাতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন বলেন, ‘সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে রায়হান আহমেদ নিহতের ঘটনায় পুলিশের এসআই আকবরকে গ্রেপ্তার করতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। সে যে স্থানে থাকতে পারে, সেইসব স্থানের লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদে এবং তাদের বাড়ি ঘরে তল্লাশি চালিয়েছি। গতকালকে আমাদের কাছে একটি বিশেষ খবর আসে যে, সাবইন্সপেক্টর আকবর ভারতে পালিয়ে যেতে পারে। সেই সুবাদে গতরাত থেকে আমরা কানাইঘাটে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছি।’

এসপি বলেন, ‘আমরা যখনই খবর পেলাম সে দেশ থেকে ভারতে পালিয়ে যেতে পারে তখনই আমরা সীমান্ত এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছিল। কালকে যে তথ্য ছিল যে, কানাইঘাট থেকে পালিয়ে যেতে পারে সেই হিসেবে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। এই অভিযানের নেতৃত্ব দেন কানাঘাট ও জকিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)।’

পুলিশ সুপার বলেন, ‘আজ সকালে কানাইঘাটের সীমান্তবর্তী এলাকায় ভারতে পালিয়ে যাওয়ান সময় সাদা পোশাকে মোতায়েন থাকা পুলিশ সদস্যরা এসআই আকবরকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। তাকে গ্রেপ্তার করার পর ইতিমধ্যেই তাকে সিলেট সদরে নিয়ে এসেছি।’

জেলা পুলিশের সর্বোচ্চ কর্মকর্তা বলেন, ‘এখানে অনেক সাধারণ মানুষ জড়ো হয়েছেন। আমি তাদেরকে আশ্বস্ত করে বলতে চাই এবং পুরো সিলেটবাসীকে আশ্বস্ত করতে চাই, সুনির্দিষ্টভাবে যথাযথ শাস্তির উদ্দেশ্যে এই বিচার প্রক্রিয়া সম্পাদনের জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে যা করণীয় তার সর্বোচ্চটাই করা হচ্ছে। পুলিশ বাহিনীর অন্যতম মর্যাদাপূর্ণ শাখা পিবিই (পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন) এই মামলার তদন্ত করছে। আমরা ইতিমধ্যে পিবিআইর জেলা এসপির সঙ্গে কথা বলেছি। তারা কিছুক্ষণের মধ্যেই চলে আসবে। তারা এলেই এই আসামিকে হস্তান্তর করবো। এরপর যত আইনি প্রক্রিয়া তারা প্রতিপালন করবেন।’

শর্টলিংকঃ

About নিউজ ডেস্ক

View all posts by নিউজ ডেস্ক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *